Home » » দীপিকা, রণবীর, প্রিয়াঙ্কা, বানশালীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

দীপিকা, রণবীর, প্রিয়াঙ্কা, বানশালীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

Written By setara on Sunday, May 4, 2014 | 3:42 AM

গত বছর মুক্তি পাওয়া 'গলিও কি রাসলীলা: রাম-লীলা' ছবি মুক্তির আগেই বিতর্কের ঝড় উঠেছিল। ছবিটির মাধ্যমে হিন্দু সম্প্রদায়ের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার অভিযোগে গত ২২ নভেম্বরের আগে ছবি মুক্তির ওপর আদালতের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও ১৫ নভেম্বর ছবিটি মুক্তি দেওয়া হয়। সম্প্রতি ছবিটির নির্মাতা সঞ্জয় লীলা বানশালী, প্রযোজক কিশোর লুল্লা, ছবির তিন অভিনয়শিল্পী দীপিকা পাড়ুকোন, রণবীর সিং, প্রিয়াঙ্কা চোপড়াসহ ছবির সংগীত পরিচালক ও গীতিকারের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। 'রাম-লীলা' ছবির কয়েকটি দৃশ্য ও সংলাপের মাধ্যমে হিন্দু সম্প্রদায়ের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার অভিযোগে গত বছরের নভেম্বরে মামলা হয়েছিল। চলতি বছরের ১৪ ফেব্রুয়ারি 'রাম-লীলা' ছবির প্রযোজক, নির্মাতা, তিন অভিনয়শিল্পী, সংগীত পরিচালক ও গীতিকারের বিরুদ্ধে সমন জারি করা হয়। কিন্তু আদালতে হাজির না হওয়ায় গতকাল ৩ মে তাঁদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এস পি সিং। এক খবরে এ তথ্য জানিয়েছে ওয়ান ইন্ডিয়া। ম্যাজিস্ট্রেট এস পি সিং মুম্বাই পুলিশ কমিশনারকে অভিযুক্ত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারের নির্দেশনা দেওয়ার পাশাপাশি আগামী ৪ জুন আদালতে হাজির করতেও বলেছেন।
প্রসঙ্গত, শেকসপিয়ারের 'রোমিও অ্যান্ড জুলিয়েট' অবলম্বনে 'গলিও কি রাসলীলা: রাম-লীলা' ছবিটি তৈরি করেন সঞ্জয় লীলা বানশালী। এতে 'রাম' ও 'লীলা' চরিত্রে অভিনয় করেন রণবীর সিং ও দীপিকা। ছবিটিতে আরও অভিনয় করেন রিচা চাদ্ধা, সুপ্রিয়া পাঠক, গুলশান দেবিয়া প্রমুখ। এ ছাড়া ছবির 'রাম চাহে লীলা' আইটেম গানে অংশ নেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। 'রাম-লীলা' ছবিটির মাধ্যমে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার পাশাপাশি যৌনতা, সহিংসতা এবং অশ্লীলতার অভিযোগ তোলা হয়। এসব অভিযোগে মামলা দায়েরও করা হয়। মামলার অভিযোগে বলা হয়েছিল, ছবির শিরোনাম 'রাম-লীলা' হলেও হিন্দু দেবতা রামের জীবনের সঙ্গে ছবির গল্পের কোনো মিল নেই। এতে করে দর্শকেরা বিভ্রান্ত হবেন। মামলার পরিপ্রেক্ষিতে গত বছরের ১২ নভেম্বর 'রাম-লীলা' ছবির পরিচালক সঞ্জয় লীলা বানশালী ও পরিবেশক সংস্থা ইরোস ইন্টারন্যাশনালকে ছবিটি মুক্তি দেওয়া থেকে বিরত থাকতে বলেন আদালত। আদালতের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও নির্ধারিত তারিখ ১৫ নভেম্বরেই মুক্তি পায় ছবিটি। মুক্তির পরপরই ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে বিক্ষোভের ঝড় ওঠে। ছবিটি মুক্তি পাওয়ার পর ভারতের রাজধানী দিল্লির পাশাপাশি ইন্দোর, রাজকোট, জলন্ধরসহ আরও কয়েকটি রাজ্যে বিক্ষোভের ঝড় উঠলেও প্রথম দিনেই দারুণ ব্যবসা করে ছবিটি। এর মধ্যে ছবিটির বক্স অফিস আয়ের পরিমাণ ২০০ কোটি রুপি ছাড়িয়ে গেছে।

0 comments:

Post a Comment